<

Blog (ব্লগ)



কদিন থেকেই সবকিছু অসহ্য লাগছে। কারও সাথেই ঠিকমত কথা বলছিলাম না।নিজেই বুঝতে পারছিলাম আমি বদলে যাচ্ছি। সবাইকে অবিশ্বাস আর সবকিছুকে ঘৃণা করতে শুরু করে দিয়েছি। কিন্তু আমি তো এমন নই। তাহলে কেন এমন হচ্ছে ? হাসির কথাতেও হাসি আসছে না। বিষাদ এ ভরে গেছে মনটা। মনে হচ্ছে পৃথিবীকে কিছু দেয়ার নেই আর পৃথিবীর কাছে কিছু পাওয়ারও নেই। ভয় হচ্ছে বদলে গিয়ে আমিও কি ওদের মতো হয়ে যাব? যাদের ঘৃণা করি যাদের কর্মকাণ্ডকে ঘৃণা করি তাদের মতো হয়ে যাব? না না এ হতে দেয়া যাবে না। এ হওয়া উচিত না। আমার ব্যক্তি সত্ত্বাকে আমি নষ্ট হতে দিতে পারি না। কিছু একটা করতে হবে।

ভাবতে লাগলাম, খুঁজতে লাগলাম, নিজেকে নিজে প্রশ্ন করতে লাগলাম। কোন জিনিষটা আমার ভালো লাগে, কিংবা লাগতো ? আমার পছন্দের কি আছে?

আমি গান ভালবাসতাম। দুখের গান, সুখের গান, বিষাদের গান জীবনের সব সময়ের জন্য সবরকমের গান রয়েছে। গানে সমস্যাগুলো যেমন আছে তেমনি আছে সমাধানও । 'যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলো রে' কি অসাধারণ কথা। যখন মনোবল ভেঙ্গে যায় তখন এ ই গান ই আবার উঠে দাঁড়ানোর শক্তি সঞ্চয় করায়। মনের খোরাক মিটাতে গানের ভূমিকা অনস্বীকার্য। 'মানুষ আমি আমার কেন পাখির মতো মন' সমাজ ধর্ম করছি মানুষ হয়ে কিন্তু পাখির মতো উড়তে ইচ্ছে করে। চলে যেতে ইচ্ছে করে বহুদূরে । থাকবে না ঘরে ফেরার টান, থাকবে না কোন ভাবনা। যেখানে রাত সেখানেই বানাবো নীড়। এতো ভাবনার পর বুঝলাম গান আমার জীবনের অবিচ্ছেদ একটি অংশ। আমি গান ছাড়া জীবন পৃথিবী কল্পনাই করতে পারি না।

আগে রাত হলেই বারান্দায় চলে যেতাম জোছনা দেখতে। চাঁদের আলো আর জোছনা সে এক অসাধারণ দৃশ্য। এ ই জোছনা দেখতে দেখতে একসময় মরতেও রাজি ছিলাম। এতো অপরূপ সৌন্দর্য বহুদিন দেখা হয়নি। আবার দেখব। তাহলে আমার আমি কে খুঁজে পাব।হারাতে দেবো না আমার আমিকে ভাবতেই চোখে জল আসছে।

ছোটবেলায় খুব গোয়েন্দা বই পরতাম। তিন গোয়েন্দা। বেশ লাগতো। অনেক খুঁজে খুঁজে ছোট ছোট সূত্র ধরে কেমন ভাবে যেন রহস্যা সমাধান বের করত। একটু বড় হওয়ার পর শুরু করলাম শীর্ষে ন্দু , সুনীল এর বই । দীপাবলির জীবন সংগ্রাম , গর্ভ ধারিণী র তিন বন্ধুর এড ভেঞ্চার , অনুভব করতাম আমিও তাদের ই একজন।, অথবা সাথেই আছি। বই পড়া মানে এক অন্য জগতে বিচরণ করা, হারিয়ে যাওয়া, মিশে যাওয়া প্রতিটা চরিত্রের মাঝে, হয়ে যাওয়া তাদের ই একজন। খাওয়া, ঘুম ভুলে যাওয়া সে এক অন্য রকম অনুভূতি। বই শেষ না করা পর্যন্ত সে কি অস্থিরতা। কতবার মায়ের বকা খেয়েছি গোসল, খাওয়ার জন্য! বইমেলাতে ব্যাগ ভর্তি করে বই কিনে আনা, স্কুল ছুটির সময়গুলোতে প্রতিদিনের হিসেবে একটা বই ঠিক করা। আহা সে দিনগুলো আমার। কতটা এক্সা ইটিং ছিল সে দিনগুলো। তাইতো চাইলেই পারি সে দিনগুলো আবার ফিরিয়ে আনতে। মনে করছি তাতেই শিহরিত হচ্ছি। এর মানে আমি আজো ভালোবাসি বই পরতে।

স্বপ্ন দেখতে কার কেমন লাগে জানিনা তবে আমার বরাবরই ভালো লাগতো। এখনও লাগে। আজ বহুদিন হল স্বপ্ন দেখি না। আসলে ঘুমই হচ্ছে না ঠিকমত। বিরক্তি নিয়ে ঘুমোতে যাই আবার উঠিও বিরক্তি নিয়ে। কদিন আগে একটা ছবি দেখলাম। ALICE IN WONDERLAND একেবারে যেন আমার স্বপ্নগুলোর মতো। সেই স্বপ্ন দেখা রাত কি আবার আসবে? এখন তো প্রতি ঘণ্টায় ঘুম ভেঙ্গে যায় রাতে। সেই নিরবিছিন্ন ঘুম কি দিতে পারবো আবার? আবারো কি ফিরে যেতে পারবো আমার সেই স্বপ্নরাজ্যে ?

ফুলের সুবাস, পাখির ডাক এগুলো আর খেয়াল করা হয় না। কোন একটা গাছ দেখলেই খুঁজে বের করতাম তার নাম। বৃষ্টিতে ভিজে ভিজে নাচ, প্রজাপতি দেখলেই ছুটে গিয়ে বন্ধুদের সাথে প্রতিযোগিতায় নামা কে কয়টা ধরতে পারে আরও কতো কি। এই লেখাটা লিখতে লিখতেই চোখগুলো জ্বল জ্বল করছে আর সাথে মুচকি হাসি । বুঝতে পারছি আরে আমি তো কতো কিছুই ভালবাসতাম। এখনও বাসি। মনে আছে যখন ঝড় আসতো দরজা জানালার ফাঁক দিয়ে দেখতাম গাছগুলো হেলে পরছে আর সে কি ভয়ানক শব্দ। ভয় পেতাম কিন্তু সেই ভয় এও ছিল অন্য রকম আনন্দ। শিলা বৃষ্টি দেখা আর শিল গুলো মুখে দিয়ে আইস ক্রিম এর স্বাদ নেয়া কোথায় গেলো সে দিনগুলো আমার। ভোঁরে উঠে পাশের বাড়ির শিমুল ফুল চুরি করে সেই যে মালা গাঁথা। আমি আবার ফিরে যেতে চাই আমার সে দিনগুলোতে। লো ড শেডই ং এর সময় দেয়ালে হাত দেয়া বিড়াল, হাতি, গাধা বানানো, কাগজ দিয়ে নৌকা, প্লেন বানানো। আরও কতো কি?

আমি তো কতো কিছুকেই ভালবাসি। জীবন এ শুধু হতাশা, দুঃখ কষ্ট নেই। কতো কিছু আছে ভালবাসার। ভাবতে ভাবতে কতকিছু পেয়ে গেলাম। এগুলোই শেষ নয় আরও আছে। প্রতিজ্ঞা করলাম আজ থেকে শুধু ভাললাগার ভালবাসার জিনিষগুলো ভাবব। ধরে রাখবো আমার আমিকে।

সাজিয়া স্নিগ্ধা

২৬/০৯/১৩

লন্ডন

Email me when people comment –

You need to be a member of আমাদের বাংলা to add comments!

Join আমাদের বাংলা

Comments

  • লেখার সূত্র ধরেই বলি, যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চলো রে। এই একলা চলার মাঝেই আমার আমিকে খুজে পাবেন। অসংখ্য ধন্যবাদ একটি সুন্দর লেখার জন্য। 

  • ধন্যবাদ আপু। শুভ হোক আপনার যাত্রা। আমাদের আরো সুন্দর সুন্দর লেখা উপহার দেবেন প্রত্যাশায়।

  • Sumon TowhidShomi Akter , গোর্কি , দিলু নাসেরMohona Hassan Prema , Naina Kaur
    Tamanna Chowdhury, দেলোয়ার মুহাম্মদ , মেহের নিগার  আপনাদের সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ উষ্ণ  স্বাগতম এর জন্য। আপনাদের শুভকামনা সত্যি আমাকে উৎসাহিত করছে আরও ভালো লিখতে।

  • সুস্বাগতম আমাদের বাংলায়।

    শুভ হোক পথচলা।

    লেখা ভাল লেগেছে

    ভাল থাকা হোক অবিরত।

  • আমাদের ভুবনে সু-স্বাগতম ।  অনেক সুন্দর রচনা ।

  • I am new too

  • আপনাকে অভিনন্দন।

  • শুভ কামনা আপু্ আমাদের বাংলায় আপনাকে স্বাগতম।

  • সাজিয়া স্নিগ্ধা  স্বাগতম ও শুভেচ্ছা আপনাকে আর লিখা আশা করি...

  • শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

This reply was deleted.

ইচ্ছে

আমার প্রথম কবিতা ছিলআনকোরা হাতের চাপে ক্লান্ত,শেষ কবিতা হয়ে উঠুকউজ্জ্বল এক নক্ষত্র ।প্রথম ভালবাসা ছিল ইচ্ছেনদীশেষ ভালবাসা হোক সমুদ্রসাক্ষী।
Read more…
Comments: 0
Sarwar-E Alam updated their profile photo
Feb 13
পীযূষ কান্তি দাস commented on Moynur Rahman Babul's blog post এও তো প্রেম
"সুন্দর গল্প ।
ভালো লাগলো ।"
Jan 17
Moynur Rahman Babul posted blog posts
Jan 17
পীযূষ কান্তি দাস commented on বকুল দেব's blog post সে তুমি , আমার বাবা
"বাবা তুমি জ্বেলেছিলে
সত্যের আগুন এই মনে ,
তোমার আলোয় ভাসছি আমি
প্রতিদিন আর প্রতিক্ষণে ।
এই ভাবে পারি যেন
থাকতে অবিচল ,
প্রনাম জেনো লক্ষ -কোটি
আশীর্বাদে পাই বল ॥"
Jan 17
Hasan is now a member of আমাদের বাংলা
Jan 16
পীযূষ কান্তি দাস posted blog posts
Jan 16
পীযূষ কান্তি দাস liked পীযূষ কান্তি দাস's blog post "অভিমান"
Jan 16
Moynur Rahman Babul liked Moynur Rahman Babul's blog post এও তো প্রেম
Jan 15
পীযূষ কান্তি দাস commented on ইকবাল হোসেন বাল্মীকি's blog post ক্ষুদে গল্পঃ-১, কিছু সত্যকাণ্ড শুনে লঙ্কাকাণ্ড করিবার ইচ্ছা হয় - ইউ এন ও সমাচারঃ
"বা বা ভালা লাগল"
Jan 15
পীযূষ কান্তি দাস is now a member of আমাদের বাংলা
Jan 15
Moynur Rahman Babul posted a blog post
        অনেক কথা ছড়ায় ছড়ায়বলিতে পারিনা খুলেকিজানি মারে, পুলিশ ধরেমামলার খড়গ ঝুলে । মোল্লার কথা বলিব কিছুকিন্তু ধর্মে ভয়দেবতার বলি ঠাকুরের কাজেতবু পুরোহিত রয় । নেতার খেলাপ যদি বলা হয়আমার ছড়ায় কিছুহয়তো নেবে তার হুকুমেচেলাচামুণ্ডা পিছু । পুলিশের কথা বল…
Jan 5
GAUTAM NATH updated their profile photo
Dec 8, 2017
GAUTAM NATH posted a blog post
আমার প্রথম কবিতা ছিলআনকোরা হাতের চাপে ক্লান্ত,শেষ কবিতা হয়ে উঠুকউজ্জ্বল এক নক্ষত্র ।প্রথম ভালবাসা ছিল ইচ্ছেনদীশেষ ভালবাসা হোক সমুদ্রসাক্ষী।
Dec 8, 2017
GAUTAM NATH is now a member of আমাদের বাংলা
Dec 8, 2017
Moynur Rahman Babul posted a blog post
আমি মানুষটা আসলেই একটু হিসেবী। নাঃ, এই হিসেবীর অর্থ কীপ্টা নয়। কৃপণ হবো কেন ? আমার কীসের অভাব ? আসলে আমার হিসাব মিলাতে হয় অন্যখানে। আমার যেকোন কৃতকর্মে আমি একেবারেই ব্যর্থ হতে চাইনা। হইও না। এটা আমার ধাতে নেই। কুষ্ঠিতে নেই। যা করি, যে টুকু করি অর্থা…
Dec 3, 2017
Moynur Rahman Babul posted a blog post
পাশাপাশি ফ্ল্যাটে থাকেলক্ষি আর বিমলারনজিৎ তার বিপরীতেএকদম একেলা।রোজদিন যেতে আসতেচোখাচোখি হয়ভদ্রতায় খাতির করেহ্যায় হ্যালো কয়।লোডশেডিং প্রতিদিনহয় দুই ফ্ল্যাটেসেসময় বিমলারাবারান্দায় হাটে।খোলা চুলে হাটাহাটিরনজিৎ দেখেবের হয় চাদর গায়েখুসবো মেখে।খুসবোতে মা…
Nov 26, 2017
এস ইসলাম posted a blog post
কবি শফিকুল  ইসলাম উদভ্রান্ত যুগের শুদ্ধতম কবি শফিকুল ইসলাম। তারুণ্য ও দ্রোহের প্রতীক । তার কাব্যচর্চ্চার বিষয়বস্তু প্রেম ও দ্রোহ। কবিতা রচনার পাশাপাশি তিনি অনেক গান ও রচনা করেছেন। তার দেশাত্ববোধক ও সমাজ-সচেতন গানে বৈষম্য ও শোষণের বিরুদ্ধে দেশবাসীকে…
Nov 26, 2017
এস ইসলাম updated their profile photo
Nov 17, 2017
Moynur Rahman Babul posted a blog post
কলম ঘষে সুকুমারলিখে যান ছড়ামাসুল তাকে দিতে হয়বড় বেশী চড়া।ছড়ায় লিখা ভাষাগুলোলিখা হয় কড়াপুলিশ র‌্যাব খোঁজে তারেনিয়ে হাতকড়া।তেল মারার নীতি নাই লেখা সব ছড়াসত্যকথায় ছন্দগুলোচোখ ছানাবড়া।কড়া ভাষা সুকুমারেরছন্দঘর গড়ালেখা জোখায় দিতে হয়দাম তার চড়া।চড়া দামের ছ…
Nov 3, 2017
Moynur Rahman Babul posted a blog post
পঁচিশ বছর আগের স্মৃতি আজও মনে পড়ে-প্রতিদিন গোধূলী বেলায় তুমিধূলিমাখা পথ ধরেধূলার বেষ্টনীতে ধোঁয়ারঙে মিশেউত্তর মুলাইমের কাঁচাপথে হেঁটে যেতে...আমার নানাবাড়ী উত্তরমুলাইম গ্রামজন্মে বাবার মুখ দেখবোনা বলেগর্ভে নিয়েই মা চলে এসেছিলেন তার বাবার আলয়ে জন্ম,…
Oct 26, 2017
More…